1. protinews24@gmail.com : protinews.com : Bamgakobi Zahed
বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ১১:২৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম

বাংলায় রিসার্চ মেথডোলজির উপর ১ম ফ্রি অনলাইন ট্রেনিং সম্পন্ন

  • প্রকাশিত: সোমবার, ১২ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৯৫
ডেস্ক রিপোর্ট 

জ্ঞান-ভিত্তিক সমাজ বিনির্মানে গবেষণার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে আর বলার অপেক্ষা রাখে না। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হচ্ছে গবেষণা ও মুক্ত জ্ঞান চর্চার স্থান। এখানেই স্কুল-কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে মূল পার্থক্য। স্কুল-কলেজে পাঠ্যপুস্তকের অন্তর্ভুক্ত বিষয় সমূহ পড়ানো হয় এবং সেগুলো ব্যবহারিক ক্লাসে দেখানো হয়। আর বিশ্ববিদ্যালয়ে কোন বিষয়ের মৌলিক জ্ঞান প্রদানের পাশাপাশি সেই বিষয়ে পুরো পৃথিবীতে কি গবেষণা হচ্ছে তাও জানানোর কথা ছিল। কিভাবে ওই বিষয়ে আরো বেশি উন্নতি করা যায় এবং সেই জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করা যায় সেটি দেখানোর কথা থাকলেও বেশির ভাগ বিশ্ববিদ্যালয় গতানুগতিক পদ্ধতিতে চলছে। যদিও কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে চূড়ান্ত বছরে প্রোজেক্ট অথবা থিসিস করানো হয় কিন্তু এর আগে স্নাতকোত্তরের বিভিন্ন বিষয়ের উপর গবেষণা অথবা প্রোজেক্ট করানোর বিষয়টি বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই উপেক্ষিত। অত্যন্ত দুঃখের বিষয় যে, অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্স লেভেলেও গবেষণা বিষয়টি উপেক্ষিত হয়। নামমাত্র প্রজেক্ট / ইন্টার্নশিপের রিপোর্ট জমা দিয়েই ছাড় পেয়ে যায়।

বাংলাদেশে গবেষক হতে চাওয়া মানুষের সংখ্যা অনেক। অনেকেই ব্যক্তিগতভাবে শেখার জন্য চেষ্টা করে। কিন্তু বাংলায় গবেষণা শেখার উপর গোছানো ও প্রয়োজনীয় গাইডলাইন, টিউটোরিয়াল ও রিসোর্সের অপ্রতুলতা রয়েছে যা সবার জানা। আর শিক্ষার্থীদের মধ্যে গবেষণা ভীতি তো আছেই। বিষয়গুলোকে মাথায় রেখে বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক ও তরুন গবেষক মিলে গবেষক হতে চাই নামক গবেষণা শেখার উন্মুক্ত প্লাটফর্ম তৈরি করেছেন। বিভিন্ন উদ্ভাবনী পদক্ষেপের  মাধ্যমে গবেষণায় আগ্রহী নতুনদের হাতেখড়ি দেয়ার চেষ্টা করছে

গ্রুপটির পক্ষ থেকে আয়োজিত  How to Become a Researcher? নামক একটি অনলাইন ফ্রি ট্রেনিং শুরু হয় গত ১২ জুলাই ২০২০ ইং তারিখে । তিন মাসব্যাপী জুম সফটওয়ার ও গুগল ক্লাসরুমের মাধ্যমে ক্লাসগুলো পরিচালনা করা হয়। এই ফ্রি ট্রেনিং – এ ২২ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আন্ডারগ্রেডের বিভিন্ন বর্ষের ৪৫ জন শিক্ষার্থীকে সুযোগ দেয়া হয়। ট্রেনিং – এ সু্যোগ না পাওয়া শিক্ষার্থীদের অনুরোধে রেকর্ডেড ক্লাসসমূহ ইউটিউবে সিরিজ আকারে প্রকাশ করা হয়েছে। সিরিজটির লিংকঃ https://tinyurl.com/ResearchLectures। কোর্সটি পরিচালনা করেছেন চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ ছাবির হোসাইন (রিসার্চ প্রোফাইলঃ https://www.researchgate.net/profile/Md_Hossain470), অতিশ দীপংকর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ নুরুল আমিন (রিসার্চ প্রোফাইলঃ https://www.researchgate.net/profile/Mohammad_Amin16) এবং চাইনিজ একাডেমি অফ সাইওন্সের পিএইচডি গবেষক মোঃ রাশিদুল ইসলাম (রিসার্চ প্রোফাইলঃ https://www.researchgate.net/profile/Md_Rasidul_Islam)।

এই কোর্সের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের (পাবলিক/প্রাইভেট/ন্যাশনাল/মেডিকেল/অন্যান্য) গবেষণা শিখতে আগ্রহী যে কোন বর্ষের যে কোন বিভাগের শিক্ষার্থীদের জিরো নলেজ থেকে গবেষণার হাতে খড়ি দেয়ার চেষ্ঠা করা হয়েছে। ইতিমধ্যে কোর্সের লেকচারগুলো বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশে উচ্চ শিক্ষারত বাংলাভাষী শিক্ষার্থীদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ শিক্ষার্থীদের এই লেকচারগুলো দেখার পরামর্শ দিচ্ছে।

লাইভ ক্লাসে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী অনন্যা হক বলেন, “মেডিক্যাল রিলেডেড রিসার্চ সব জায়গায় লাগে যেমনঃ স্ক্লারশিপ, বাইরে এপ্লাই, ক্যারিয়ার, দেশের উন্নতির জন্য। রিসার্চ একটা বড় ব্যাপার। কিন্তু আমি গবেষণার কোন দিশা খুঁজে পাচ্ছিলাম না। অনেক জায়গায় খুজেছি যে, একটা বেসিক গাইডলাইন আছে কি না? সব জায়গায় দেখতেছি এডভান্স অথবা খুবই বেশি পেমেন্ট (১০/১৫ হাজার টাকা) দিয়ে ওয়ার্কশপ জয়েন করতে হবে। আমি বুঝতেছিলাম না যে, এই ওয়ার্কশপে জয়েন করে আদৌ আমার লাভ লাভ হবে কি না? একটা রিসার্চ গ্রুপে স্যারের নিউজ ও গ্রুপের খবরটা পাই। পূরো কোর্সটা অনেক ভালো ছিল। যেহেতু আমি একদম কিছুই জানতাম না বাট এখন কোর্স শেষ করার পর মনে হচ্ছে, আমি যদি ট্রাই করি এবং স্যারদের তত্বাবধায়নে কাজ করি ইনশা আল্লাহ্‌ আমি আন্ডারগ্রাডুয়েট লেভেলেই পেপার পাবলিশ করতে পারব।”

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের তৌসিফ আহমেদ বলেন, “রিসার্চ সম্পর্কে আমার কোন আইডিয়া ছিল না। আন্ডারগ্রেড লেভেলেই ছাবির স্যারের প্রকাশণা দেখে খুবই মোটিভেটেট হই। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে গবেষণার অনেক ঘাটতি আছে। আজকে আমি এই কোর্সটা করে গবেষণা সম্পর্কে এতকিছু জানতে পারছি যা অন্যান্যরা কিছুই জানে না। এই জন্য আমি গর্বিত স্যার আর আজীবন কৃতজ্ঞ থাকব।” শাহাজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের আসফাক আবরার খান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রবিউল ইসলাম, চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়েশা বানু, নাফিস ফুয়াদ প্রান্ত – সহ অনেকেই তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করেছে।

ইউটিউবে গবেষণার উপর লেকচারগুলো দেখে গবেষণায় উৎসাহ পেয়েছেন অনেকেই। অনলাইনে ভিডিও দেখে সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সিএসই বিভাগের টিচিং অ্যাসিস্টেন্ট মোঃ ওমর ফারুক জাহাংগীর বলেন,”যখন এই গ্রুপ সম্পর্কে জানতে পারি, তখন গবেষক হতে চাই গ্রুপে জয়েন করি। দেন স্যারের ভিডিওগুলো ফলো করতে থাকি। একটা টিউটোরিয়ালে দেখতে পেলাম, স্যার (মোঃ ছাবির হোসাইন) আসলে বলতেছেন, স্যারের আন্ডারগ্রেডের স্টুডেন্টদের অনেক পাবলিকেশন আছে, ১২,১৩,১৪ টা অথবা আরও বেশি। তখন আমি ভাবলাম, সেকেন্ড ইয়ারের স্টুডেন্টরা পারলে, আমি পারব ইনশাআল্লাহ পারব। বিষয়টা হচ্ছে এটা। স্যারকে অসংখ্য ধন্যবাদ এবং স্যারের সাথে যারা (মোঃ নুরুল আমিন ও মোঃ রাশিদুল ইসলাম) এডমিন হিসেবে কাজ করতেছেন তাদেরকেও অসংখ্য ধন্যবাদ। স্যারদের কাছে আজীবন কৃতজ্ঞ থাকব। কারণ স্যারদের এই মহৎ উদ্দোগের কারনে আমার মধ্যে ওই ভয়টা আর কাজ করছে না এবং আমি থেসিস পেপার নিয়ে কাজ করছি আলহামদুলিল্লাহ।”

চট্টগ্রাম টিচার্স ট্রেনিং কলেজের গনিত  বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মোঃ আখতার হোসাইন কুতুবী ইউটিউবে ভিডিওতে কমেন্ট করেন, “Excellent Content on Primary Concept of Research. Any student can be learned about research. Many Thanks for Md. Sabir Hossain Sir.”

চীনের ইয়াংযু ইউনিভার্সিটির সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী গাজী যুবায়ের হোসাইন বলেন, “Sir, I’m watching your videos from China, This is the first and many excellent video series in Bengali. Thank you so much for your great initiative. I have benefited a lot. Your style of explaining is really great.  May Allah reward you with Goodness.”

গবেষক হতে চাই গ্রুপের এডমিন ও এই কোর্সের পরিকল্পনাকারী মোঃ ছাবির হোসাইনকে এরকম উদ্দ্যোগ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, “আমার প্রচেষ্টায় চুয়েটের সিএসই বিভাগের ২য় বর্ষের এলগোরিদম ডিজাইন ও এনালাইসিস ল্যাব কোর্সের প্রজেক্ট ও গবেষণা কাজ থেকে দশের অধিক গবেষণাপত্র প্রকাশিত হয়েছে। গবেষণাপত্রগুলো নামকরা বিভিন্ন আন্তর্জাতিক কনফারেন্স ও জার্নালে গৃহীত হয়েছে যা ইতিমধ্যেই বাংলাদেশের বিভিন্ন পত্রিকায় ফিচার হয়েছে। গবেষণা ভীতি দূর করে গবেষণাবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি করার লক্ষ্যে আমার এই প্রচেষ্টা পূরো দেশে ছড়িয়ে দিতে এই গ্রুপ ও কোর্সের অবতারনা। এই কোর্সের মাধ্যমে একেবারে আগ্রহী নতুনদের গবেষণায় হাতেখড়ি দেয়ার চেষ্টা করেছি। তবে ভালো গবেষণা ও প্রকাশনার জন্য অবশ্যই বিষয়ভিত্তিক ভালো কোন গবেষকের সুপারভিশনে কাজ করতে হবে।”

তিনি আরও বলেন, “শুধু ৪র্থ বর্ষে নয়, যেকোন বর্ষের শিক্ষার্থীদের দ্বারা গবেষণা সম্ভব হয়। যে সমস্ত বিষয়ে গবেষণা বা প্রজেক্ট করার সুযোগ আছে (সকল কোর্সে সম্ভব নয়) সেখানে শিক্ষার্থীদের উৎসাহ দেয়া প্রয়োজন বলে আমি মনে করি। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষার্থীদের কনফারেন্স রেজিস্ট্রেশন ফি সহ অন্যান্য সুবিধা প্রদান করলে আরো উৎসাহিত হবে।”

কোর্সের ইনস্ট্রাকটর ও গ্রুপের মডারেটর মোঃ নুরুল আমিন বলেন, “বিশ্বব্যপী গবেষণার ক্ষেত্র প্রতিনিয়ত প্রসার লাভ করছে। উন্নত রাষ্ট্রগুলো নিজেদের মধ্যে  সুস্থ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে গবেষণায় নিজেদেরকে সমৃদ্ধ করছে। তাই গবেষণার গুরুত্ব অনুধাবনপূর্বক দেশের নবীন শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত ও সহযোগিতা করার লক্ষ্যেই আমরা “গবেষক হতে চাই” গ্রুপে কাজ করছি। গবেষণার বেসিক বিষয়গুলোর উপরেই আমরা ট্রেনিং প্রদান শুরু করি যা তরুণ সমাজে ইতিমধ্যেই ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। আমি বিশ্বাস করি, আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস তরুনদেরকে দারুনভাবে লাভবান করবে ইনশাআল্লাহ।”

কোর্সের আরেকজন ইনস্ট্রাকটর ও গ্রুপের মডারেটর মোঃ রাশিদুল ইসলাম বলেন, “সময়ের সাথে সাথে বর্তমানে গবেষণা কাজ হয়ে উঠেছে খুবই প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক। বাংলাদেশের তরুণ শিক্ষার্থীরা অনেকেই গবেষণা করতে চায় কিন্তু কীভাবে করবে সেটি অনেক সময় খুঁজে পায়না। আমাদের দেশের বেশিরভাগ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে রিসার্চ নিয়ে আলাদা বিষয় পড়ানো হয় না। তরুণ গবেষকদের গবেষণা কাজ শুরু করার প্রাথমিক ধাপ হলো রিসার্চ/গবেষণা কীভাবে করে সে সম্পর্কে ধারণা থাকা। গবেষণা বিষয়ে আমরা তরুণ শিক্ষার্থীদের ফ্রি অনলাইন কোর্স করিয়েছি। গবেষণা কীভাবে শুরু করবে ও গবেষণা পদ্ধতি জানতে এই কোর্সের কোন বিকল্প নেই। আমাদের এই কোর্স বাংলাদেশে প্রথম এবং আমরা আশা করি, এই কোর্সের মাধ্যমে তরুণ গবেষকদের অনেক উপকার হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© বঙ্গকবি মিডিয়া লিমিটেড